ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম

Medicine Price BD

ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে প্রত্যেক বিবাহিত মহিলা এবং পুরুষদের অবগত হওয়া উচিত। আমাদের দেশের প্রায় ৪০% বিবাহিত মহিলারা জীবনের কোন না কোন সময়ে ফেমিকন পিল সেবন করে থাকেন। অনেকে এই পিল সেবন না করলেও অন্যান্য পিল সেবন করেন। জন্ম নিয়ন্ত্রণ পিলগুলো সঠিক নিয়ম মেনে ব্যবহার না করলে হিতে বিপরীত হতে পারে। আসতে পারে অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ। সুতরাং এ ধরনের মারাত্মক সমস্যায় পড়ার আগেই আমাদের লেখাটি মনোযোগ দিয়ে একবার পড়ে নিন।

ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম

 

 

ফেমিকন কি

বাংলাদেশে বহুল পরিচিত জন্ম নিয়ন্ত্রণ পিলগুলোর মধ্যে ফেমিকন এস এম সি কোম্পানির অন্যতম একটি ব্র্যান্ড। চতুর্থ প্রজন্মের জন্মনিয়ন্ত্রণকারী  পিলগুলো বাজারজাতকরণের পূর্বে ফেমিকন ছিল বাংলাদেশের সবচেয়ে বহুল ব্যবহৃত পিল গুলোর মধ্যে একটি। স্বল্পমাত্রার এই পিল বেশিরভাগ বিবাহিত মহিলাদের শরীরের সাথে খাপ খায় বলে জন্মনিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে এটি ব্যবহার করা হয়। একটি সাদা ফেমিকন পিলে রয়েছে লজেস্টেল ০.৩০ মিলিগ্রাম, ইথালিন ইস্ট্রেডিওল ০.০৩ মিলিগ্রাম এবং একটি বাদামি পিলে রয়েছে ফেরাস ফিউমারেট ৭৫ মিলিগ্রাম। 

 

ফেমিকন খাওয়ার নিয়ম

এই পিলের একটি পাতায় মোট ২৮ টি ট্যাবলেট থাকে যার মধ্যে ২১ টি সাদা এবং সাতটি লাল বর্ণের। মেয়েদের পিরিয়ড শুরুর দিন থেকে ২১তম দিন পর্যন্ত প্রতিদিন একটানা একটি করে সাদা রংয়ের ট্যাবলেট একই সময়ে সেবন করতে হয়। তারপর ২২ তম দিন থেকে লাল রংয়ের ৭টি ট্যাবলেট সেবন করতে হবে। যতদিন পর্যন্ত গর্ভধারণ কিংবা সন্তান গ্রহণ বন্ধ রাখতে চান ততদিন পর্যন্ত ঠিক একই নিয়মে এই পিল সেবন করা বাধ্যতামূলক। যখন গর্ভধারণ করবেন তখন থেকে এটি সেবন করা সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করে দিন। কোনক্রমে যদি একদিন একটি সাদা ট্যাবলেট খেতে ভুলে যান তবে পরের দিন একই সাথে ওই সময় দুইটি ট্যাবলেট সেবন করতে হবে। 

আরওঃ নিয়মিত মাসিক না হওয়ার কারণ গুলো জেনে নিন

 

ফেমিকন পিল সেবন করার সুবিধা

যারা বিয়ের পর খুব দ্রুত গর্ভধারণ করতে চায়না তাদের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত জন্ম নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি হলো পিল সেবন। যখন ইচ্ছা তখনই এই পদ্ধতিতে প্রবেশ এবং বের হওয়া যায় বলে আমাদের দেশের নব দম্পতিরা ফেমিকন পিল সেবন করে থাকেন। এক প্যাকেট ফেমিকন ট্যাবলেটের দাম মাত্র ৩০ টাকা। স্বল্পমূল্যের কারণে বাংলাদেশের দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত জনগণের মধ্যে এটি জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। 

 

ফেমিকন পিলের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

অন্যান্য সকল জন্মনিয়ন্ত্রণকারী পিলের মত ফেমিকন পিলের ও কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া রয়েছে। এই পিল সেবন করার ফলে মাথা ঘোরা, বমি ভাব, কিংবা পিরিয়ড ছাড়াও যোনিপথে হালকা রক্তের ফোটা বের হতে পারে। শুরুর দিকে এই সমস্যাগুলো একটু বেশি হলেও দুই থেকে তিন মাস পর তা সম্পূর্ণরূপে কমে যায়। তবে অত্যাধিক সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

আরওঃ ইমার্জেন্সি পিল খাওয়ার নিয়ম

 

সতর্কতা

আপনার বয়স যদি ৪৫ বছরের বেশি হয়ে থাকে কিংবা আপনি যদি গর্ভবতী হয়ে থাকেন তবে ফেমিকন পিল সেবন করা বন্ধ রাখুন। পাশাপাশি অন্যান্য শারীরিক সমস্যা থাকলে এই পি এল সেবন করার পূর্বে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। তবে এ সকল পিল ব্যবহারের চেয়ে জন্মনিয়ন্ত্রণের সবচেয়ে উত্তম পদ্ধতি হলো প্রাকৃতিক উপায় অবলম্বন করা। 

Medicine Price BD

Related medical and medicine article

সর্দি থেকে মুক্তির ঘরোয়া উপায়

সর্দি থেকে মুক্তির ঘরোয়া উপায়

আদা এবং তুলসী পাতা কুচি কুচি করে কেটে এক গ্লাস পানিতে মিশিয়ে ফুটাতে থাকুন। পানি যখন কমতে কমতে অর্ধেক হয়ে...Continue

খাবার খাওয়ার পর পায়খানা হয় কেন

যেভাবে বুঝবেন হরমোনের সমস্যায় ভুগছেন কিনা

হরমোন মূলত আমাদের শারীরিক সকল কার্যক্রমের সাথে সম্পর্কযুক্ত। শরীরের যদি কোন একটি কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হয় কিংবা গ্রোথ ডেভেলপমেন্ট ঠিকমতো না...Continue

খাবার খাওয়ার পর পায়খানা হয় কেন

মাথা ঘোরালে যা করবেন।

দ্রুত মাথা ঘোরা কমাতে পানি, স্যালাইন অথবা কচি ডাবের পানি পান করতে পারেন। মাথা ঘোরার সঙ্গে যদি বমি হয়ে থাকে...Continue

খাবার খাওয়ার পর পায়খানা হয় কেন

খাবার খাওয়ার পর পায়খানা হয় কেন? জেনে নিন সমাধান।

খাবার খাওয়ার পর পায়খানা হয় কেন? আপনারও কি খাবার খাওয়ার পরপরই পেটে চাপ ধরে পায়খানার ভাব চলে আসে? যদি আপনার...Continue

arrow_right_alt