ঘুমের ঔষধের নাম কি | ১১০ টি ঘুমের ঔষধের নাম ও দাম

আপনি কি জানতে চান ঘুমের ওষুধের নাম কি?  তাহলে এই লেখাটি আপনার জন্য । কমবেশি বিভিন্ন সমস্যার কারণে আমাদের রাতে এবং দিনের বেলায় ঘুম আসে না। এই অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে চিকিৎসকরা বিভিন্ন সময় আমাদের ঘুমের ঔষধ সেবনের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। সুতরাং সবচেয়ে ভালো ঘুমের ওষুধের নাম কি সেটা আমাদের জেনে রাখা উচিত। এতে করে সহজেই ভালো ঔষধ সেবন করা আমাদের জন্য সহজ হবে।

পাশাপাশি মাথায় রাখা উচিত যে ঘুমের ঔষধ কখনো নিজে নিজে কিংবা যেকোনো কারো পরামর্শে সেবন করা একদম উচিত নয়। কারণ ঘুমের ওষুধের ভুল ডোজর পরিমাণ আপনার জন্য মারাত্মক সমস্যা বয়ে নিয়ে আসতে পারে। তাই ঘুমের ঔষধ সেবন করার পূর্বে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে সেবন করুন।

ঘুমের ঔষধের নাম জানা কেন প্রয়োজন ?

ঘুমের ঔষধের নাম কি
ঘুমের ঔষধের নাম কি

প্রায় ৫০-৭০ মিলিয়ন আমেরিকান জনগণ দুর্বল ঘুম দ্বারা আক্রান্ত হয়। কিছু গবেষণা অনুসারে, যুক্তরাষ্ট্রে ৩০% পর্যন্ত প্রাপ্ত বয়স্ক রা রিপোর্ট করেছেন যে তারা প্রতি রাতে ৬ ঘন্টারও কম ঘুমায়।যদিও এটি একটি সাধারণ সমস্যা, খারাপ ঘুমের মারাত্মক পরিণতি হতে পারে।কম ঘুম আপনার শক্তি হ্রাস করতে পারে, আপনার হ্রাস করতে পারে এবং উচ্চ রক্তচাপ এবং ডায়াবেটিসের মতো রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে।

ঘুমের ঔষধের নাম: ধরুন, একজনের কোথাও খুব ব্যাথা, ব্যাথার কারণে ঘুম হয় না, তাহলে তার জন্য এক প্রকারের ঘুমের ঔষধ বা Sleeping Medicine প্রয়োজন। আবার আরেকজনের দুশ্চিন্তায় ঘুম হচ্ছেনা, তার জন্য আবার অন্য প্রকারের ঔষধ সাজেশন দিতে হবে। তবে বেশির ভাগ মানুষ ডিপ্রেশন থেকে মুক্তির জন্য ঘুমের ঔষধ খেতে চায়। তবে , ঘুমের ঔষধ খাওয়ার আগে অবশ্যই ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করতে ভুলবেন নাহ । আপনার জন্য ১০০+ টি ঘুমের ঔষধের তালিকা দেয়া হলো।

আরোঃ দিনে কতবার মিলন করা যায়?

ঘুমের ঔষধের জেনেরিক নাম

ঘুমের ঔষধের জেনেরিক নাম জানলে আপনি ঐ গ্রুপের বিভিন্ন কোম্পানির বিভিন্ন ঔষধ কিনতে পারবেন।

  • ক্লোনাজেপাম
  • ডায়াজেপাম
  • এলপ্রাজোলাম
  • এমিট্রিপটাইলিন
  • ব্রোমাজেপাম
  • বুসপিরন
  • ক্লোরডায়াজেপক্সাইড
  • ক্লোরপোমাজিন হাইড্রক্লোরাইড
  • ক্লোবাজাম
  • ক্লোনিডাইন হাইড্রক্লোরাইড
  • কিটোটিফেন

পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াহীন ঘুমের ঔষধের নাম

আমাদের শরীরে Melatonin নামক একটি রাসায়নিক উপাদান আছে, যার কাজ ঘুম নিয়ন্ত্রন করা। মেলাটোনিন এমন একটি হরমোন যা শয়ন করার সময় আপনার শরীরকে বলে ঘুমিয়ে পড়ার জন্য। এটাকে Circadian Cycle বলে। Melatonin increase হয় সুর্যাস্তের পরে। কারও কারও Melatonin এর ঘাটতিই হওয়া অনিদ্রার কারণ। ঘুমের জন্য প্রতি রাতে শোবার আধা ঘন্টা আগে ১ টি Filfresh Tablet খেতে পারেন ।

ব্রোমাজিপাম ঘুমের ঔষধের নাম ও দাম

বাংলাদেশে ব্রোমাজিপাম গ্রুপের বেশ কিছু ঘুমের ঔষধ পাওয়া যায়। ব্রোমাজিপাম একটি জেনেরিক নাম। ঔষধটি মূলত স্ট্রেস বা টেনশন কমিয়ে আনতে সহায়তা করে। ব্রোমাজিপাম গ্রুপের বেশ কিছু ঘুমের ঔষধ বাংলাদেশে পাওয়া যায়। ঔষধটি ৩ মিগ্রা থেকে পাওয়া যায়। নিচে ৩ মিলিগ্রাম ঔষধের মূল্য এবং লিষ্ট দেওয়া হলো (মূল্য যে কোন সময় কিছুটা পরিবর্তন হতে পারে ) :

ব্রোমাজিপাম ঘুমের ঔষধটি একটি ধীরে ধীরে কাজ করে । খাওয়ার আগে ঘুমের ওষুধ টি খাওয়ানো ভালো!

আরোঃ স্থায়ীভাবে লিঙ্গ বড় করার উপায় । পুরুষাঙ্গের ব্যায়াম

ব্রোমাজিপাম ঔষধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

ব্রোমাজিপাম এর বেশ কিছু পার্শপ্রতিক্রিয়া রয়েছে । তার মধ্যে অন্যতম পার্শপ্রতিক্রিয়াগুলো হলো: ঘুম ঘুম ভাব, ভারসাম্য লোপ পাওয়া এবং এটাক্সিয়া। একেক জনের ক্ষেত্রে একেক রকম পার্শপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয় ।

ঔষধের নাম

ঘুমের ওষুধের নামঘুমের ওষুধের টাইপঘুমের ওষুধের ডোজকোম্পানিঘুমের ওষুধের দাম (টাকা/পিস)
Ancotil💊3 mgRangs Pharma
4.02
Anxio💊3 mgUniMed UniHealth 4.50
Anxionil💊3 mgNIPRO JMI Pharma
5.02
Anxirel💊3 mgNovo Healthcare4.01
Benzopam💊3 mgBenham Pharma
5.00
Bomaz💊3 mgSharif Pharma
4.01
Bopam💊3 mgOpsonin Pharma4.54
Bromazep💊3 mgOrion Pharma
4.01
Bronium💊3 mgDoctor’s CWL 1.50
Broze💊3 mgBiopharma Lab 5.02
Brozep💊3 mgAlco Pharma 5.00
Freten💊3 mgDelta Pharma 3.00
Kpam💊3 mgKemiko Pharma 4.01
Laten💊3 mgSupreme Pharma 3.00
Laxonil💊3 mgRephco Pharma 4.00
Laxyl💊3 mgSquare Pharma 5.02
Lazonil💊3 mgRephco Pharma 3.00
Lexnil💊3 mgAsiatic Lab 4.00
Lexopam💊3 mgCredence Pharma4.50
Lexopil💊3 mgHealthcare Pharma5.00
Lexotanil💊3 mgRadiant Pharma 7.00
Mapez💊3 mgKumudini Pharma4.00
Nightus💊3 mgBeximco Pharmad3.00
Norry💊3 mgRenata Limited 5.00
Notens💊3 mgAristopharma5.00
Peacepil💊3 mgConcord Pharma5.00
Relaxaid💊3 mgLabaid Pharma5.00
Relaxium💊3 mgAmico Lab 4.00
Rem💊3 mgAmbee Pharma 3.50
Restol💊3 mgEskayef Pharma5.00
Siesta💊3 mgIncepta Pharma 4.00
Tarbo💊3 mgPharmasia Ltd 5.00
Tenapam💊3 mgGeneral Pharma 5.01
Tenil💊3 mgACME Lab 5.01
Tensfree💊3 mgGlobe Pharma 4.50
Tynaxie💊3 mgNavana Pharma 5.02
Xionil💊3 mgSANDOZ 5.10
Xiopam💊3 mgEuro Pharma 5.00
Zepam💊3 mgACI Ltd 5.02
Zerotens💊3 mgPopular Pharma 4.00

দ্রুত ঘুমের ঔষধের নাম কি

ক্লোনাজিপাম গ্রুপের ঘুমের ঔষধ সাধারণতঃ ফিট ব্যাধি, প্যানিক অ্যাটাক এবং ঘুম না হওয়া ইত্যাদি উপসর্গের ব্যাধির জন্য ব্যবহৃত হয়। তবে এই ঘুমের ঔষধটি পাগলের ঔষধ নামেও পরিচিত। ক্লোনাজিপাম জাতীয় ঔষধটি অনেক হাই পাওয়ারের , যা দ্রুত ঘুমের ঔষধ বা ঘুমের ট্যাবলেট হিসেবে গ্রহণ করে থাকেন। ক্লোনাজিপাম জাতীয় ঔষধটি খাওয়ার পর মানুষ এক রকেমর জ্ঞানশূণ্য হয়ে যায়।

ঘুমের ঔষধের নামের তালিকা

  • Aristopharma কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Arotril
  • Beximco কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Xetril
  • Roche কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Rivotril
  • Orion কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Rivo
  • Opsonin কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Pase
  • Acme কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Leptic
  • Epitra কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Square
  • General কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Epiclon
  • Incepta কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Disopan
  • Reneta কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Denixil
  • SKF কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Cloron
  • ACI কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Clonium
  • Healthcare কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Clonatril
  • Popular কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Clonapin
  • Pharmasia কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Clonzy
  • Biopharma কোম্পানির ঘুমের ঔষধের নাম Cloma
  • ক্লোনাজেপাম গ্রুপের সবচেয়ে পরিচিত একটি ঔষুধ হচ্ছে ডিসোপেন ২ বা disopan 2 ।
  • ফেনেট হলো কিটোটিফেন জাতীয় ঘুমের ঔষধ। এলারিড ট্যাবলেট  ।

দ্রূত ঘুমের সিরাপ

দ্রূত ঘুমের সিরাপ : এলারিড সিরাপ (square) ,প্রোজমা সিরাপ (Ibn Sina) ,টোটি সিরাপ কিটোটিফেন জাতীয় ঘুমের সিরাপ।খিটখিটেভাব, স্নায়বিক দুর্বলাবস্থা ,চোখ জ্বালা ,চোখ ব্যাথা ইত্যাদি লক্ষণের জন্য কিটোটিফেন জাতীয় সিরাপ খেতে পারে ।

ঘুমের ঔষধের নাম ছবি

ডায়াজিপাম গ্রুপের ঘুমের ঔষধ বাংলাদেশের একটি পরিচিত ঘুমের ঔষধ। একটি গবেষণায় জানা গেছে, এই ঔষুধটি বাংলাদেশে ঘুমের ঔষুধ হিসেবে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়। কি অবাক হচ্ছেন ? ডায়াজিপাম গ্রুপের স্কোয়ার কোম্পানির মেডিসিন সিডিল ( Sedil ) ঘুমের ঔষুধ হিসেবে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়ে থাকে। এটি মূলত মাদক থেকে মুক্তির জন্য সুপারিশ করা হয় বা প্রেসক্রাইব করা হয়। তবে অনেকেই এটি নেশার জন্য ব্যবহার করে 😔 যা খুবই দুঃখজনক।

ঘুমের ওষুধের নামঘুমের ওষুধের টাইপডোজঘুমের ওষুধের কোম্পানিদাম (টাকা/পিস)
Azepam💊5 mgACME Lab0.69
D-Pam💊5 mgGeneral Pharma0.68
Diazimet💊5 mgMedimet Pharma.0.50
EasiumIM/IV Injection10 mg/2 mlOpsonin Pharma2 ml ampoule: 3.71
Evalin💊5 mgAristopharma0.68
G-Diazepam💊5 mgGonoshasthaya Pharma0.49
Orinil💊5 mgDoctor’s Chemical Works.0.21
Pharmapam💊5 mgPharmadesh Lab0.25
Relaxen💊5 mgSonear Lab0.68
Sedapen💊5 mgAmico Lab0.69
Sedatab💊5 mgSupreme Pharma0.68
Sedil💊5 mgSquare Pharma0.69
Seduxen💊5 mgAmbee Pharma0.65
Seequil-S💊5 mgSeema Pharma0.21
Tensareal💊5 mgIndo Bangla Pharma0.25
ঘুমের ঔষধের নাম কি

ঘুমের হোমিও ঔষধের নাম তালিকা ও ছবি

ঘুমের হোমিও ঔষধের নাম : হোমিও ঘুমের ঔষধের নাম তালিকা, Homeopathic Sleeping Medicine Name in Bengali, হোমিওপ্যাথিক ঘুমের ওষুধের নাম তালিকা ,ছবি ও বিস্তারিত জানতে নিম্নের লেখাগুলো পড়ুন ।

  • Nux vomica – রাতে বিছানায় যাওয়ার পরে সারাদিনের কাজ-কর্মের চিন্তা মাথার ভিতরে নানা দুশ্চিন্তা কাজ করতে থাকে, অসহনীয় বিরক্তি হয় ; ফলে ঘুম আসতে চায় না। বিশেষত যারা বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য সেবন করে, বেশী বেশী চা-কফি পান করেন, যাদের পেটের অসুখ বেশী হয়, নাক্স ভমিকা তাদের অনিদ্রায় ভালো কাজ করে থাকে। নাক্স ভমিকা আপনার দুশ্চিন্তা জনিত ইমসোমনিয়া থেকে পরিত্রাণ পেতে সাহায্য করতে পারে।
  • Opium – ঘুমঘুম ভাব কিন্তু ঘুম আসে না, চোখে প্রচন্ড ঘুম মনে হয় তবে শোয়ার পর ঘুম আসে নাহ 😐। খুবই সেনসিটিভ, ঘড়ির কাটার শব্দ কিংবা দূরের কোন মোরগের ডাকেও তার ঘুম ভেঙ্গে যায়। দুঃস্বপ্ন দেখে, কুকুর, বিড়াল, প্রেতাত্মা, বোবায়ধরা স্বপ্নে দেখে, ঘুমের মধ্যে দম বন্ধ হয়ে আসে ইত্যাদি লক্ষণ থাকলে অপিয়াম ঔষধটি খেতে হবে। হোমিও ওষুধের কথা বলা হয়েছে, অন্য কিছু মনে করবেন নাহ!
  • Ignatia amara – সাধারণত শোক-দুঃখ-বিরহ-বিচ্ছেদ ইত্যাদি কারণে ঘুম না আসলে তাতে ইগ্নেশিয়া আমারা প্রযোজ্য। এদের ঘুম এত পাতলা হয় যে, তারা ঘুমের মধ্যে চারপাশের সবকিছুই শুনতে পায়। মানে ঘুম অনেক পাতলা হয়, তাদের জন্য এ ওষুধটি উপকারি হতে পারে।
  • Magnesium carbonica – সাধারণত পেটের কোন অস্বস্তি, ভীষণ শীতকাতর জামাকাপড় খুলতে চান না, পেটে গ্যাসের উৎপাত, আক্কেল দাঁত ওঠা, সারারাত ঘুমিয়েও ফ্রেস লাগে না বরং ঘুম থেকে ওঠার পরে খুবই টায়ার্ড লাগে মনে হয় সারারাত কুস্তি খেলেছেন, আগুন ডাকাত ঝগড়া মরা মানুষ ইত্যাদি স্বপ্ন দেখে ইত্যাদি লক্ষণে ম্যাগনেসিয়াম কার্বোনিকা খেতে পারেন। আশা করি উল্লেখিত লক্ষণযুক্ত সমস্যা হলে Magnesium carbonica ভালো কাজ হতে পারে।
  • Cocculus indicus – সাধারণত ভীতু, নার্ভাস, অত্যধিক পড়াশোনা করে এমন লোকদের ক্ষেত্রে কুকুলাস ইনডিকাস প্রয়োগ করতে হয়। রাত জেগে কাজ করার কারণে যদি অনিদ্রা দেখা দেয়, তবে অবশ্যই ককুলাস ইনডিকাস খাবেন।
  • Cannabis indica – ক্যানাবিস ইন্ডিকা সাধারণত দীর্ঘদিনের পুরনো এবং দুরারোগ্য অনিদ্রা রোগে প্রযোজ্য হতে পারে । যাদের একেক দিন একেক টাইমে ঘুম আসে, দিনে ঘুম আসে প্রচুর, রাতের ঘুমে কোন আরাম পাওয়া যায় না, রাতে গরম লাগে যেন কেউ তার গায়ে গরম পানি ঢালতেছে ইত্যাদি লক্ষণে ক্যানাবিস ইনডিকা খেতে পারেন। যেহেতু এই ঔষধটি গাঁজা থেকে তৈরী করা হয়, তাই বলা যায় গাঁজার নেশা করার কারণে যদি কারো অনিদ্রা দেখা দেয়, তারা এটি খেয়ে উপকৃত হবেন ইনশাআল্লাহ ।
  • Kali phosphoricum – Kali phosphoricum অনিদ্রার একটি সেরা ঔষধ। বিভিন্ন কঠিন রোগ ভোগ, অত্যধিক শারীরিক-মানসিক পরিশ্রম, অপুষ্টি, দীর্ঘদিন যাবত স্তন্যদান করা ইত্যাদির মাধ্যমে সৃষ্ট নিদ্রাহীনতায় (বা অন্যকোন রোগে) ক্যালি ফসফরিকাম খেতে হয়। মাঝে মাঝে সপ্তাহ খানেক বিরতি দিয়ে দীর্ঘদিন খান। হৃদপিন্ড, স্নায়ু এবং মস্তিষ্কের উপর ইহার প্রশান্তিকারক ক্রিয়া বিদ্যমান। তাছাড়া যেহেতু এটি একটি ভিটামিন জাতীয় ঔষধ, তাই ইহার কোন ক্ষতিকর সাইড ইফেক্ট নাই বললেই চলে।
  • Coffea cruda – মানসিক উত্তেজনা, উৎকন্ঠা, দুঃশ্চিন্তা থেকে অনিদ্রা দেখা দিলে তাতে কফিয়া ক্রুডা প্রযোজ্য। সুসংবাদ শুনে, আনন্দের আতিষয্যে, শিশুদের দাঁত ওঠার বয়সে বা রাত জাগার কারণে অনিদ্রা হলে তাতে কফিয়া ক্রুডার কথা ভাবতে হবে। মহিলাদের সন্তান প্রসব পরবর্তী সময়ের অনিদ্রায় কফিয়া ক্রুডা ভালো কাজ করে। খুবই সেনসেটিভ রোগীদের ক্ষেত্রে কফিয়া ক্রুডা প্রযোজ্য যারা আওয়াজ সহ্য করতে পারে না, গন্ধ সহ্য করতে পারে না, স্পর্শ সহ্য করতে পারে না ইত্যাদি ইত্যাদি।
  • Ambra Grisea – সাধারণত চাকুরি বা ব্যবসা সংক্রান্ত দুঃশ্চিন্তার কারণে নিদ্রাহীনতা হলে তাতে এমব্রাগ্রিসিয়া প্রযোজ্য। সারাদিন পরিশ্রম করে ক্লান্ত,শ্রান্ত হয়ে বাড়ি ফিরে কিন্তু যখনই বালিশে মাথা রাখে, সাথে সাথেই ঘুম চলে যায়। এই ঔষধের একটি অদ্ভূত লক্ষণ হলো এরা অপরিচিত কেউ সামনে বা আশেপাশে থাকলে, পায়খানা করতে পারে না।
  • Hyoscyamus niger – মাত্রাতিরিক্ত মাথা খাটুনির কাজ (brainwork) করার কারণে অনিদ্রা দেখা দিলে তাতে হায়োসাইয়েমাস নিগার খেয়ে উপকার পাবেন। মাথার মধ্যে জোয়ারের পানির মতো ফালতু চিন্তার স্রোত বইতে থাকে। যদি শিশুরা ঘুমের মধ্যে চিৎকার করে ওঠে, কাঁপতে থাকে ; তবে তাতে হায়োসায়েমাস নিগার প্রযোজ্য।
  • Sulphur – সকাল দিকে ভীষণ খিদে পাওয়া, শরীর গরম লাগা, মাথা গরম কিন্তু পা ঠান্ডা, মাথার তালু-পায়ের তালুতে জ্বালাপোড়া ইত্যাদি লক্ষণ পাওয়া গেলে নিদ্রাহীনতা রোগেও সালফার প্রয়োগ করে দারুণ ফল পেতে পারেন ।
  • Belladonna – যদি মুখমন্ডল বা মাথা গরম বা লাল হয়ে থাকে, মাথা ব্যথার থাকে, শরীরে জ্বালা-পোড়াভাব থাকে ইত্যাদি কারণে নিদ্রাহীনতা দেখা দেয়, তবে তাতে বেলেডোনা প্রযোজ্য।
  • Chamomilla – শরীরের কোথাও মারাত্মক ব্যথার কারণে ঘুমাতে না পারলে, সেক্ষেত্রে ক্যামোমিলা প্রয়োগ করতে হবে। যারা অর্থহীন আজেবাজে স্বপ্নের কারণে শান্তিতে ঘুমাতে পারে না, ঘুমের ভেতরে ছটফট করতে থাকে, দুবর্ল-নার্ভাস মহিলা, শরীর গরম, প্রচুর পিপাসা ইত্যাদি লক্ষণ থাকলে ক্যামোমিলা উপকার দিতে পারে।
  • Arsenic album – মাত্রাতিরিক্ত অস্থিরতা, এক মূহূর্তও এক পজিশনে স্থির থাকতে পারে না, লক্ষণ থাকলে তাতে আর্সেনিক আলবাম খেতে হবে। রাতে একবার ঘুম ভাঙলে আর ঘুম আসে না, লক্ষণ থাকলে তাতে আর্সেনিক আলবাম খেতে হবে।
  • Gelsemium – সাধারণত যারা অতিরিক্ত মানসিক পরিশ্রম করেন অথবা বিষন্নতায় ভোগেন, তাদের অনিদ্রা দূর করতে এটি ব্যবহৃত হয়। এ লক্ষণ থাকলে তাতে জেলসেমিয়াম খেতে হবে।

ইনসোমনিয়া বা অনিদ্রার ফল

সঠিকভাবে ঘুম না হলে তথা ইনসোমনিয়ার ফলে অনেক সমস্যা হতে পারে। যেমন –

  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া
  • রক্তচাপ বেড়ে যাওয়া
    হৃদরোগ
  • স্ট্রোকের ঝুঁকি বেড়ে যাওয়া
  • মাথা ব্যথা
  • কোমর ব্যথা
  • অসস্তি
  • ক্যানসার হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়
  • ওজন বৃদ্ধি পাওয়া
  • দুশ্চিন্তা বৃদ্ধি পায়
  • মেজাজ খিটখিটে থাকে
  • কাজে মনোযোগ নষ্ট হয়ে যেতে পারে
  • ঘুম দেরিতে আসা
  • পাতলা ঘুম হওয়া এমনকি বারবার ঘুম ভেঙে যাওয়া
  • অনেক ক্ষেত্রে দুই-তিন রাত ঘুমাতে না পারা
  • পড়াশোনা ও অন্য কাজে মনোযোগের অভাব
  • মেজাজ খিটখিটে থাকা
  • মাঝেমধ্যেই মাথা ব্যথা হওয়া
  • অল্প কারণেই রেগে যাওয়া
  • সামান্য পরিশ্রমেই ক্লান্তিবোধ করা

এছাড়া আরও অনেক ছোট বড় সমস্যা দেখা যেতে পারে

  • হালকা গরম দুধ – হালকা গরম দুধ অনায়াসেই ঘুমের ওষুধের বিকল্প হতে পারে। অনেকেরই রাতের ঘুমে সমস্যা হয়, এটা অস্বাভাবিক কিছু নাহ। যাঁরা রাতে ঠিক সময়ে ঘুমাতে পারছেন না বা বিছানায় শুয়ে এপাশ-ওপাশ করে সারা রাত কাটাচ্ছেন, তাঁরা রাতে ঘুমানোর আগে হালকা গরম দুধ খেয়ে শুতে পারেন, উপকার পাবেন ইনশাআল্লাহ। দুধে আছে ট্রাইপটোফান ও এমিনো অ্যাসিড, যা শরীরে ঘুমের আবেশ সৃষ্টি করে। এ ছাড়াও দুধের ক্যালসিয়াম মস্তিষ্কে ট্রাইপটোফান ব্যবহারে সহায়তা করে। এক গ্লাস দুধ খেলে আপনার মানসিক চাপ অনেকটাই কমে যায় এবং শরীর কিছুটা হলেও শিথিল হয়ে আসে। ফলে ঘুম সহজেই চলে আসে।
  • পাকা কলা – পাকা কলা খেলে রাতে ভাল ঘুম হয়। পাকা কলাকে ঘুমের ওষুদের বিকল্পও বলা যেতে পারে। পাকা কলায় আছে ম্যাগনেসিয়াম যা মাংসপেশীকে শিথিল করে। এ ছাড়াও পাকা কলা খেলে মেলাটোনিন ও সেরোটোনিন হরমোন নির্গত হয়ে শরীরে ঘুমের আবেশ নিয়ে আসে। তাই যাঁদের ঘুম হয় না, তাঁরা রাতের খাবারের সঙ্গে বা পরে পাকা কলা রাখতে পারেন।
  • আলু – সেদ্ধ আলু বা রান্না করা আলু আপনার রাতের ঘুমের সহায়ক একটি খাবার হতে পারে। আলু খেলে ট্রাইপটোফানের সাহায্যে হাই তোলায় ব্যাঘাত সৃষ্টিকারী এসিড নষ্ট হয়ে যায়। ফলে আপনার মস্তিষ্ক বেশ দ্রুতই আপনাকে ঘুমিয়ে পড়তে সহায়তা করতে পারে। তবে অতিরিক্ত খাবেন নাহ নাহলে মেদ বেড়ে যাবে।
  • মধু – মধুকে সর্বরোগের ওষুধ বলা যায়। মস্তিষ্কে ওরেক্সিন নামের একটি নিউরোট্রান্সমিটার আছে যা মতিষ্ককে সচল রেখে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়। রাতে ঘুমানোর আগে মধু খেলে মস্তিষ্কে গ্লুকোজ প্রবেশ করে এবং ওরেক্সিন উৎপাদন বন্ধ করে দেয় কিছু ক্ষণের জন্য, যা আপনাকে দ্রুত ঘুমিয়ে পড়তে সহায়তা করবে। মধুর সাথে সকালে কালোজিরা খেতে পারেন, অনেক উপকার পাবেন।
  • বাদাম – রাতের ঘুমের জন্য আরেকটি উপকারী খাবার হলো বাদাম। যাদের রাতে ঘুমাতে সমস্যা হয় তারা প্রতিদিন রাতের খাবারে ১০/১২ টি বাদাম খেলে রাতের ঘুম ভাল হবে । বাদাম হৃৎপিণ্ড ও ব্রেনের জন্য খুবই উপকারী।

রিভোট্রিল ( Rivotril ) খাওয়ার নিয়ম

দৈনিক রিভোট্রিল ওষুধ তিনটি সমান বিভক্ত মাত্রায় দেয়া উচিত।যদি ওষুধ তিনটি সমান মাত্রায় বিভক্ত না হয়, তবে বৃহত্তর মাত্রাটি সর্বশেষে দিতে হবে। প্রাপ্ত বয়স্ক : প্রাপ্ত বয়স্কদের প্রারম্ভিক মাত্রা দৈনিক ১.৫ মি.গ্রা. এর উর্ধ্বে হওয়া উচিত নয়। খাওয়ার আগে ঘুমের ওষুধ টি খাওয়ানো ভালো!

ডোরম্যাক্স (Dormax ) খাওয়ার নিয়ম

Dormax ট্যাবলেট বাজারজাত করে থাকে Aristopharma Ltd . কোম্পানি। আপনি নিকটস্থ যেকোন ফার্মেসিতে ঔষধটি খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।প্রতিটি ঔষধের মূল্য 10 টাকা করে প্রতিটি 30 পিছে প্রতি বক্স থাকে প্রতি বক্সের মূল্য হচ্ছে 300 টাকা করে। প্রাপ্ত বয়স্করা দিনে ১.৫ মিগ্রা – ২ মিগ্রা এর বেশি খাবেন নাহ। খাওয়ার আগে ঘুমের ওষুধ টি খাওয়ানো ভালো!

সিডিল (Sedil) খাওয়ার নিয়ম

সিডিল (Sedil) খাওয়ার নিয়ম : Sedil ঘুমের ঔষুধ হিসেবে বেশী বিক্রি হয়ে থাকে। এটি মূলত মাদক থেকে মুক্তির জন্য সুপারিশ করা হয় । প্রাপ্ত বয়স্করা দিনে ১.৫ মিগ্রা – ২ মিগ্রা এর বেশি খাবেন নাহ। খাওয়ার আগে ঘুমের ওষুধ টি খাওয়ানো ভালো!

চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষধ সেবন করুন।

ঘুমের ঔষধের ওভারডোজ

ঘুমের ঔষধের ওভারডোজ , ঘুমের ওষুধের ওভারডোজ :

ঔষধের নাম

  • নির্ধারিত ডোজের বেশি নেবেন না। বেশি ঔষধ নিলে আপনার উপসর্গের উন্নতি হবে না; বরং তারা থেকে বিষক্রিয়া বা গুরুতর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হতে পারে। আপনার যদি সন্দেহ হয় আপনি বা অন্য কেউ বেশি মাত্রায় নিয়েছেন দয়া করে নিকটস্থ হাসপাতালে বা নার্সিং হোমের জরুরি বিভাগে যান।
  • আপনার ওষুধ অন্য কারুর একই রোগ থাকলেও তাকে দেবেন না। মাত্রাতিরিক্ত হয়ে যেতে পারে।.
  • আরও তথ্যের জন্য আপনার চিকিৎসক অথবা ফার্মাসিস্ট এর সঙ্গে পরামর্শ করুন বা পণ্যের প্যাকেজ দেখুন।

Topic: 100 টি ঘুমের ঔষধের নাম ছবি, ঘুমের ঔষধের নাম কি, Sleeping Medicine Name in Bengali , Ghumer Medicine Tablet , পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াহীন ঘুমের ঔষধের নাম , Osudh ar Name Bangla,Ghumer Osud er Name,ঘুমের ওষুধ সিডিল (Sedil) খাওয়ার নিয়ম, Ghumer osudh khawar niyom, রিভোট্রিল ( Rivotril ) খাওয়ার নিয়ম, সিডিল (Sedil) খাওয়ার নিয়ম,কড়া ঘুমের ঔষধের নামের তালিকা ও ছবি, দ্রূত ঘুমের সিরাপ , ঘুমের হোমিও ঔষধের নাম তালিকা ও ছবি , স্লিপিং পিল কীভাবে কাজ করে?, ঘুমের ঔষধের ওভারডোজ , ঘুমের ওষুধের ওভারডোজ।

Related medical and medicine article

কোমর ব্যথার ট্যাবলেট কি

কোমর ব্যথার ট্যাবলেট কি | কোমর ব্যাথা সারানোর সহজ উপায়

কোমর ব্যথার ট্যাবলেট কি এমন প্রশ্ন অনেকেই করে থাকেন। আসলে কোমর ব্যথা এমন একটি সমস্যা, যা শতকরা ৯০ শতাংশ মানুষের...Continue

ইরেকটাইল ডিসফাংশন

ইরেকটাইল ডিসফাংশন থেকে মুক্তির উপায়

ইরেকটাইল ডিসফাংশন বা পুরুষত্বহীনতা বলতে বোঝানো হয় যৌন সঙ্গমের সময় লিঙ্গের উত্থান না হওয়াকে। অর্থাৎ কোন পুরুষ যদি তার সঙ্গিনীর...Continue

ওজন কমানোর উপায়

৭ দিনে ১০ কেজি ওজন কমানোর উপায় গুলো জেনে নিন

৭ দিনে ১০ কেজি ওজন কমানোর উপায় জানতে চান? তাহলে এই লেখাটি আপনার জন্য। কারণ ঘরে বসে ওজন কমানোর উপায়...Continue

এলার্জির চিকিৎসা

এলার্জি দূর করার উপায় | ঠান্ডা এলার্জির চিকিৎসা

এলার্জি দূর করার উপায় বলতে আমরা শুধু ঔষধ সেবনই বুঝে থাকি। কিন্তু ঠান্ডা এলার্জির চিকিৎসা ঔষধ খাওয়ার মাধ্যমে এবং ঘরোয়া...Continue

arrow_right_alt