Doct Lab is one of the best medicine and medical related information directory. Try to find your desired query.

লিভোনোরজেসট্রেল

ফার্মাকোলজি

লিভোনোরজেসট্রেল এক ধরনের ইমারজেন্সি পিল হিসেবে বাজারে পরিচিত। এই ইমারজেন্সি পিল ব্যবহৃত হয়ে থাকে অনাকাঙ্ক্ষিত অরক্ষিত সহবাসের পরবর্তী সময়ে। ইমারজেন্সি সময়ে এই পিল ব্যবহার করার মাধ্যমে সহজেই অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণের ব্যাপারটি আপনি কাটিয়ে উঠতে পারবেন। তবে এটি কখনোই নিয়মিত ব্যবহারের জন্য নয়। ইমারজেন্সি পিল গুলো সাধারণত ইমারজেন্সি সময়েই ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এ ধরনের পিল ব্যবহার করার পূর্বে এর সম্পর্কে সম্পূর্ণ জেনে-বুঝে এবং ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ব্যবহার করবেন। অন্যথায় হিতে বিপরীত হতে পারে।

উপাদান

১.৫ মিলিগ্রাম প্রতিটি ট্যাবলেট রয়েছে লিভোনোরজেস্ট্রেল । লিভোনোরজেস্ট্রেল প্রোজেস্টজেন গ্রুপের ঔষধ। এছাড়াও ০.৭৫ মিলিগ্রাম ট্যাবলেট ও পাওয়া যায়।

লিভোনোরজেসট্রেল এর কাজ বা নির্দেশনা 

ইমারজেন্সি জন্মনিয়ন্ত্রণ হিসেবে লিভোনোরজেসট্রেল সাধারণত ব্যবহৃত হয়ে থাকে। অরক্ষিত সহবাসের পর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সেবন করলে জন্মনিরোধ করা সম্ভব হয়। বলা হয়ে থাকে যে সহবাসের ১২ ঘণ্টার মধ্যে কিন্তু ৭২ ঘন্টার পরে আর এই ঔষধ কাজ করে না। যে সকল ক্ষেত্রে আপনি লিভোনোরজেসট্রেল সেবন করতে পারবেন:

  • আপনি অথবা আপনার সঙ্গী যদি অন্য কোন জন্ম নিরোধক পদ্ধতি ব্যবহার না করেন
  • যদি আপনি পরপর তিনদিন জন্মনিরোধক বড়ি খেতে ভুলে যান
  • সহবাসের সময় যদি সঠিকভাবে কনডম ব্যবহার না করেন অথবা যদি কনডম ফেটে যায়
  • আপনি যদি মনে করেন যে আপনার জরায়ুতে অবস্থিত জন্মনিরোধক স্থানচ্যুত হয়েছে
  • ধর্ষণজনিত অবস্থায়।

সাধারণত মাসিকের মধ্যবর্তী সময় কাল ২৮ দিন হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। তবে মহিলা ভেদে এর ভিন্নতা দেখা দিতে পারে। গর্ভবতী না হলে একজন মহিলার প্রতি মাসেই মাসিক হবে।

লিভোনোরজেসট্রেল পিল খাওয়ার নিয়ম বা মাত্রা

অরক্ষিত সহবাসের পর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব লিভোনোরজেসট্রেল ১.৫ মিলিগ্রাম ঔষধ সেবন করতে হবে। তবে যৌন মিলনের ৭২ ঘন্টা পর কোনভাবেই আর এই ঔষধ কাজ করবেনা। কিন্তু মাসিকের যেকোনো সময়ে এই ঔষধ সেবন করা যেতে পারে। লিভোনোরজেসট্রেল ০.৭৫ মিলিগ্রাম পিল খাওয়ার নিয়ম উপরের মাত্রা অনুযায়ী বর্ণিত।

জন্মনিরোধক পিল সেবনের পর পরবর্তী মাসিক পর্যন্ত অবশ্যই যেকোনো জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি যেমন কনডম অথবা শুক্রনাশক ব্যবহার করা বাঞ্ছনীয়।

*চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষদ সেবন করুন। 

লিভোনোরজেসট্রেল এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

লিভোনোরজেসট্রেল সেবনের পর স্বল্প সময়ের জন্য আপনার কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। এতে করে ঘাবড়ে যাওয়ার কোনো কারণ নেই। এই ঔষধ সেবনের পর যেসকল পার্শপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে সেগুলো নিচে দেওয়া হল।

  • বমি বমি ভাব
  • ঝিমুনি ভাব বা অবসন্নতা কিংবা মাথাব্যথা
  • পেটে ব্যথা অথবা স্তনে ব্যথার অনুভূতি
  • যোনিপথে হালকা রক্তক্ষরণ হতে পারে।
  • উপরের অসুবিধাগুলি ব্যতীত আর যদি অন্য কোন সমস্যা অনুভূত হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া উচিত। ঔষধ সেবনের পর যদি বমি হয় তাহলে পুনরায় আরেকটি ট্যাবলেট সেবন করতে হবে।

 

সতর্কতা

ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কখনো ঔষধ সেবন করা উচিত নয়। কখনো হঠাৎ করে অনাকাঙ্ক্ষিত অরক্ষিত সহবাসের পর আপনি লিভোনোরজেসট্রেল সেবন করতে পারেন। কিন্তু নিয়মিত জন্মনিরোধক হিসেবে এই ট্যাবলেট কাজ করবেনা। এই ঔষধ সেবন করলে গর্ভনিরোধ যে ১০০% সম্পন্ন হবে তার কোন গ্যারান্টি নেই। তবে ঔষধ সেবনের পর ৯৯% গর্ভনিরোধ করা সম্ভব হয়। নিয়মিত সেবনের ফলে এই ঔষধ আপনার শরীরে কাজ নাও করতে পারে।

সুতরাং যদি এখনই আপনাদের সন্তান গ্রহণের পরিকল্পনা না থাকে তবে বাজারে পাওয়া এসব ইমারজেন্সি পিল সেবন না করে অভিজ্ঞ কোনো ডাক্তারের অথবা গাইনী বিশেষজ্ঞ পরামর্শ নিন। এতে করে নিজেদের দাম্পত্য জীবন উপভোগের পাশাপাশি সব ধরনের যৌন রোগ থেকে মুক্ত থাকতে পারবেন।

অত্যাধিক ইমার্জেন্সি পিল সেবনের ফলে অনেক মহিলাদের সন্তান ধারণের ক্ষমতা নষ্ট হয়ে যায়। 

 

কখন আপনার এই ঔষধ ব্যবহার করা উচিত নয়?

আপনার যদি লিভোনোরজেসট্রেল এর প্রতি অতিসংবেদনশীলতা থাকে।

 

গর্ভাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে লিভোনোরজেসট্রেল

ওষুধটি গর্ভাবস্থার ক্ষেত্রে নির্দেশিত হয় না এবং এই গর্ভাবস্থায় সেবন করলে গর্ভপাত ঘটেনা। এপিডেমিওলজিক্যাল স্টাডিজ হতে জানা যায় যে ভ্রূণের বিকৃতিতে প্রোজেস্টজেনের কোনও বিরূপ প্রভাব নির্দেশ করে না। স্তন্যপান করানো সম্ভব। যাইহোক, যেহেতু লিভোনোরজেসট্রেল বুকের দুধে নিঃসৃত হয় তাই নির্দেশ করা হয় যে আপনি প্রতিটি ট্যাবলেট গ্রহণ করার আগে বুকের দুধ খাওয়ান ।

 

যৌনবাহিত রোগের ঝুঁকি সম্পর্কে পরামর্শ

সহবাসের সময় যদি আপনি কনডম ব্যবহার না করেন তাহলে আপনার সঙ্গীর কাছ থেকে আপনি এইডস সহ যেকোনো ধরনের যৌন রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। যদি আপনার যৌন সঙ্গির স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সম্পর্কে অবহিত না থাকেন কিংবা একাধিক যৌনসঙ্গী থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন।

 

সংরক্ষণ

৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে সংরক্ষণ করুন। আলো এবং আর্দ্রতা থেকে রক্ষা করুন। শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন।

arrow_right_alt